third covid wave: করোনার তৃতীয় ঢেউ মোকাবিলায় কী করণীয়? উপায় বাতলালেন দেবী শেঠি – dr devi shetty on tackle third covid wave

Share Now





হাইলাইটস

  • দেবী শেঠি জানিয়েছেন, এখনও দ্বিতীয় ঢেউ শেষ হয়নি।
  • তৃতীয় ঢেউ দ্বিতীয় ঢেউয়ের তুলনায় ৩০ শতাংশ বেশি তীব্র হতে পারে।
  • নতুন ভেরিয়েন্ট প্রসঙ্গেও উদ্বেগ ব্যক্ত করেছেন দেবী শেঠি।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা সংক্রমণ প্রতিদিনই নীচের দিকে নামছে। তবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ এখনও দাপট দেখাচ্ছে। এমতাবস্থায় তৃতীয় ঢেউ (Third Covid wave) রুখতে কী করণীয় সে প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন দেশের বিশিষ্ট হার্ট সার্জন দেবী শেঠি।

দেবী শেঠি জানিয়েছেন, এখনও দ্বিতীয় ঢেউ শেষ হয়নি। আইসিইউতে এখনও অনেক রোগী রয়েছেন। ফুসফুসের গুরুতর সংক্রমণ রয়েছে বেশ কিছু মানুষের। কোভিড রোগীদের জন্য এখনও সবসময় আইসিইউ খালি পাওয়া যাচ্ছে না। তবে সংক্রমণ নীচের দিকে নেমেছে। তিনি বলেন, কবে তৃতীয় ঢেউ আসবে, তা আগে থেকে কেউই হয়তো বলতে পারবে না। তবে সেপ্টেম্বরের পরে যে কোনও সময় এই ধাক্কার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।

দেবী শেঠি বলছেন, তৃতীয় ঢেউ দ্বিতীয় ঢেউয়ের তুলনায় ৩০ শতাংশ বেশি তীব্র হতে পারে। তৃতীয় ঢেউয়ে দ্বিতীয় ঢেউয়ের তুলনায় পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে কী না, তা নিয়ে নিশ্চিত কোনও মন্তব্য করেননি দেবী শেঠি। তবে তৃতীয় ঢেউ (Third Covid Wave) প্রসঙ্গে সতর্কতা কম করতে রাজি নন দেবী শেঠি। তিনি বলছেন, ‘আমাদের প্রস্তুত হওয়া উচিৎ।’

তিন মাসে সর্বনিম্ন, দেশজুড়ে অনেকটা নীচে সংক্রমণ
করোনার নিত্য নতুন ভেরিয়েন্ট প্রসঙ্গেও উদ্বেগ ব্যক্ত করেছেন দেবী শেঠি। পাশপাশি তিনি জানিয়েছেন, আরও অনেক বেশি আইসিইউ বেড, অক্সিজেন বেড, পেডিয়াট্রিক বেড-এর প্রয়োজন।

চিকিৎসক কমতির সমস্যা কী করে মেটানো যায়, তা নিয়েও মুখ খুলেছেন দেশের বিশিষ্ট হার্ট সার্জন। আগাম নোটিশ দিয়ে NEET P-G পরীক্ষা একমাসের মধ্যে নেওয়ার পক্ষপাতী তিনি। তাঁর বক্তব্য, ১ লাখ ৮০ হাজার চিকিৎসক NEET P-G-এর জন্য তৈরি আছে। যারা পরীক্ষায় পাশ করবে তাদের কোভিড ICU-তে পোস্টিং দেওয়া হবে। বাকি ১ লাখ ৪০ হাজার চিকিৎসককে অস্থায়ী ভিত্তিতে নিয়োগ করা হবে। এর ফলে চিকিৎসকদের সংখ্যা অনেকটা বেড়ে যাবে।

শিশুদের রক্ষায় তৎপর নবান্ন
পর্যাপ্ত ভ্যাকসিন না থাকা নিয়ে এখন অনেকেই হাহাকার করছেন। কিন্তু দেবী শেঠি আশ্বাস দিয়ে জানিয়েছেন, আগামী একমাসের মধ্যেই যথেষ্ট পরিমাণে ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। ভ্যাকসিন নিয়ে নানা গুজব ছড়ানো রুখতে ভিডিও তৈরি করে তা প্রচার করতে হবে। এক্ষেত্রে সেলিব্রিটিদের উপস্থিতি আরও কার্যকর হতে পারে।

পোস্ট কোভিডের জটিলতা প্রসঙ্গে দেবী শেঠি বলেছেন, অ্যাসিম্পটোমেটিক রোগীরা সাধারণত কোনও পোস্ট কোভিডের জটিলতায় ভোগেন না। যারা আইসিইউতে ছিলেন, বা স্টেরয়েড দিতে হয়েছে এমন রোগীদের ক্ষেত্রে কিছু জটিলতা দেখা যেতে পারে। তবে কী করে এ সমস্যা মেটানো যায়, তা নিয়ে আলোচনা চলছে। কিন্তু পরের ঢেউ রুখতে টিকা নেওয়াকেই একমাত্র উপায় বলে মানছেন দেবী শেঠিও।






Source link