Swastika Mukherjee: ‘আমার ক্যানসার হয়নি, আমার চুল আমিই কেটেছি! তো?’ – No I Don’t Have Cancer It’s My Head And My Hair So I Can And Will Do Whatever I Want Swastika Mukherjee Replied To Concerned Netizens

Share Now





হাইলাইটস

  • দিদি তোমার ক্যান্সার নাকি?
  • তোমার ডিপি-তে চুল কাটা তাই বললাম,
  • একটু কনফার্ম করে দেবে

এই সময় বিনোদন ডেস্ক: চুল নিয়ে বরাবরই পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে ভালোবাসেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। আর সব রকম হেয়ারকাটেই তাঁকে দিব্য মানিয়ে যায়। এমনকী তাঁর হেয়ারকাটে অনুপ্রাণিত হয়ে অনেকেই সেই স্টাইলে চুল কাটতে চেয়েছেন এরকম বেশ কয়েকবার হয়েছে। ইন্ডাস্ট্রিতে তাঁর ফ্যাশন সেন্সও খুবই প্রশংসনীয়। চুলের দৈর্ঘ্য ছোট হোক কিংবা বড়- সঙ্গে মানানসই পোশাকে খুব সুন্দর করে সাজতে পারেন তিনি। আর ডাই ডলি মেহরা থেকে কিজি বসুর মা-সব চরিত্রেই নিখুঁত তাঁর অভিনয়।

কিন্তু বরাবরই তাঁকে নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে। স্বস্তিকার তাক লাগানো অভিনয়ের প্রশংসা অনুরাগীরা করলেও সেখানে অযাচিত ভাবে উঠে আসে তাঁর ব্যক্তিগত জীবন। তিনি ড্রাগে আসক্ত কিনা, পুনর্বাসন কেন্দ্র থেকে ঘুরে এসেছেন কিনা এরকম অদ্ভুত সব প্রশ্ন চাগাড় দিয়ে ওঠে মানুষের মনে। সদ্য তাঁর হেয়ার স্টাইল পরিবর্তন করেছেন অভিনেত্রী। আর সেই ছবি তিনি পোস্টও করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। নো মেকআপ লুকের সেই ছবি যেমন নজর কেড়েছে অনেকের তেমনই স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে বাকিরা ট্রোল করতেও ছাড়েনি।

স্বস্তিকাকে নাকি মোটেই মানাচ্ছে না নতুন এই হেয়ার কাট। এক জন তো আবার অভিনেত্রীর পুরনো হেয়ারস্টাইল কিছুতেই ভুলতে পারছেন না। একরাশ দুঃখ নিয়ে লেখেন, “তোমার সেই লম্বা খোলা চুল, মুখ ভর্তি হাসি দিয়ে তুমি মন জিতে নাও স্বস্তিকা। কালো বড় চুল রাখা কি তোমার একেবারেই পছন্দ নয়?” একজন তো সরাসরিই লিখে ফেললেন, “বড্ড খারাপ লাগছে।” অন্য একজনের বক্তব্য, “মেক আপ নেই, ফিল্টার নেই একদম ভাল লাগছে না দেখতে।” স্বস্তিকা একদম ‘কুল’ উত্তর দিলেন, “এখন তো খারাপই চলছে। চিয়ার্স টু লুকিং ব্যাড।”

আরও পড়ুন
‘এত কাছ থেকে মিশেছি বলেই আরও কষ্ট হয়’, সুশান্তে বিষন্ন স্বস্তিকা
এর আগে এক তরুণী তাঁকে লিখেছিলেন, ‘আপনার এই সাহসিকতা আমার খুব ভালো লাগে, এই রকম চুল কাটতে চাই। কিন্তু সাহস পাই না’। তাতে স্বস্তিকার উত্তর ছিল, ‘চুলই তো, যেমন খুশি কেটে ফেলতেই পারো’। কিন্তু মানুষের মন তো। এত মহামারীতেও বদলায় না। আর তাই এক অনুরাগী প্রশ্ন করে,’দিদি তোমার ক্যান্সার নাকি? তোমার ডিপি-তে চুল কাটা তাই বললাম, একটু কনফার্ম করে দেবে’!এরপর তিনি উত্তর দেন,’আমার আর কিছু বলার নেই। মানুষের চিন্তাধারা ভগবান মর্ত্যে নেমে এলেও পাল্টাতে পারবেন না’।

এখানেই শেষ নয়, ট্যুইটারে তাঁকে এরপর লম্বা পোস্ট লিখতে হয়-‘না আমার ক্যান্সার নেই, (আমি সর্বশক্তিমানের কাছে প্রার্থনা করি যেন এটি কোনওদিন না হয়), আমি ড্রাগ নিই না, আমি ধূমপান করি না, আর আমি কখনও পুনর্বাসন কেন্দ্রে যাইনি। এটি আমার মাথা এবং আমার চুল। আর তাই আমি এর সঙ্গে যা খুশি করতে পারি, যেমন ইচ্ছে হয় করব। সব প্রশ্নের উত্তর পেলেন তো? নিন, এবার মন শান্ত করে মাথা ঠান্ডা করে লম্বা একটা শ্বাস নিন’। এরপর অবশ্য জনৈক ওই ব্যক্তি তাঁর ট্যুইটটি মুছে ফেলেন।

এই সময় ডিজিটালের বিনোদন সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে।






Source link