Sushant Singh Rajput: সুশান্ত বাড়িতে রাখতেন একটা কফিন! কিন্তু কেন জানেন? – sushant singh rajput kept a coffin at his house know why

Share Now





হাইলাইটস

  • এই পুরস্কার, সাফল্যে যাতে কখনও তিনি অহংকারী না হয়ে পড়েন,
  • যেন সবসময় তাঁর পা মাটিতেই থাকে।
  • সেই জন্য পুরস্কারগুলি কফিনের মধ্যে সজিয়ে রাখতেন তিনি

এই সময় বিনোদন ডেস্ক: দেশবাসীর জন্য ১৯ অগস্ট গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন। এই দুমাসের টানা প্রতিবাদ, আবেদনের পর বুধবার সুপ্রিম কোর্টের রায়ে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্যের তদন্তভার গেল সিবিআই-এর হাতে। এদিন ঘোষণার পরই অভিনেতা সম্পর্কে অদ্ভুত একটি তথ্য দিলেন রাম নরেশ দিবাকর। যিনি সোনচিরিয়া-তে সুশান্তের সহশিল্পী হিসেবে কাজ করেছেন। দিবাকর জানিয়েছেন সুশান্ত বাড়িতে কফিন রাখতেন। সম্প্রতি তিনি ইনস্টাগ্রামে সুশান্তের সঙ্গে কাটানো একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করেছেন।

কেন সুশান্ত কফিন রাখতেন, সেই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, অভিনেতা তাঁর যাবতীয় পুরস্কার সেই কফিনে সাজিয়ে রাখতেন। কিন্তু বাড়িতে এত জায়গা থাকতে হঠাৎ কফিন কেন? উত্তরে তিনি বলেছিলেন, ‘এই পুরস্কার, সাফল্যে যাতে কখনও তিনি অহংকারী না হয়ে পড়েন, যেন সবসময় তাঁর পা মাটিতেই থাকে। সেই জন্য পুরস্কারগুলি কফিনের মধ্যে সজিয়ে রাখতেন তিনি’। দিবাকর আরও জানান, সুশান্তের মতো এত মাটির মানুষ তিনি দেখেননি। বলিউডের যে এতবড় একজন অভিনেতা কখনও তা কথা বলে বোঝা যেত না। কোনওদিন সুশান্তের মধ্যে কোনও অহংকার ছিল না। নিজের জগতেই ব্যস্ত থাকতেন। তাই তিনি যে আত্মহত্যা করতে পারেন একথা বিশ্বাসই হচ্ছে না দিবাকরের।

আরও পড়ুন
সুশান্ত মৃত্যু রহস্য কিনারায় সিবিআই তদন্ত, সুপ্রিম রায়কে স্বাগত পরিবার-পরিজনের
অন্যদিকে সম্প্রতি সুশান্তের পরিচারক নীরজকে জেরা করে পুলিশ। জেরায় সে জানিয়েছে দরজা ভেঙে সুান্তের ঘরে প্রথম ঢুকেছিলেন বন্ধু সিদ্ধার্থ পিঠানি। এমনকী অভিনেতাকে দড়ি কেটে নামিয়ে এনেছিলেন সিদ্ধার্থই। মৃত্যুর আগে নীরজের সঙ্গেই শেষ কথা হয় সুশান্তের। বলেছিলেন শরীর ঠিক লাগছে না, একগ্লাস ঠান্ডা জল দিতে।

সুশান্ত কি সত্যিই এবার সুবিচার পাবেন? কি মনে হচ্ছে আপনার, লিখুন কমেন্ট বক্সে

নীরজ আরও বেশ কিছু তথ্য তুলে ধরেন যার সঙ্গে সিদ্ধার্থের বয়ানের অসঙ্গতি পেয়েছেন তদন্তকারীরা। যেমন সিদ্ধার্থ লেছিলেন, তাঁরা সুশান্তকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে প্রথমে খবর দিয়েছিলেন ফ্ল্যাটের গার্ডকে। কিন্তু সেই তথ্য প্রথমেই খারিজ করে দিয়েছিলেন ওই গার্ড। এছাড়াও রিয়ার সঙ্গে সিদ্ধার্থের সম্পর্ক নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। সুশান্তের বাবার আইনজীবী বিকাশ সিং তাকে বুদ্ধিমান অপরাধী বলেছে। এছাড়াও বেশ কিছু অভিযোগ করেছেন সিদ্ধার্থের বিরুদ্ধে। তবে তদন্ত এখন সিবিআই এর হাতে।


খতিয়ে দেখা হবে সবকিছু। খুব তাড়াতাড়ি তাঁরা সুবিচার পাবেন, ভগবান মুখ তুলে চেয়েছেন এমনই বললেন সুশান্তের পরিবারের সদস্যরা। আপাতত সিবিআই এর দিকে তাকিয়ে দেশবাসী। সুশান্তের মৃত্যুতে প্রথম থেকেই সিবিআই চাইছিলেন তাঁরা। ক্রমাগত জানিয়েছিলেন সেই দাবি। সুশান্ত কি এবার তবে সত্যিই শান্তিতে ঘুমোবেন?

এই সময় ডিজিটালের বিনোদন সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে







Source link