ram mandir land purchase: ২৭ লাখের জমি ১ কোটি টাকায়? মুখ খুললেন অযোধ্যা জমি কাণ্ডের সাক্ষী – deep narayan upadhyay uncle pawan upadhyay on ram mandir land purchase

Share Now





হাইলাইটস

  • অভিযোগ, একটি ২০ লাখ টাকার জমি আড়াই কোটি টাকায় বিক্রি করা হয়েছে।
  • একই জমির দাম এত অল্প সময়ে কী করে এতটা বাড়তে পারে, তাই নিয়ে সরব হয়েছেন বিরোধীরা।
  • দীপ নারায়ণের এক কাকা পবন উপাধ্যায় জানিয়েছে, জমিটি সঠিক মূল্যেই কেনা বেচা হয়েছে।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: অযোধ্যায় রাম মন্দিরের জন্য কেনা জমি নিয়ে বিতর্ক ক্রমেই বাড়ছে। একাধিক নতুন নতুন ঘটনা ক্রমেই সামনে আসছে। অভিযোগ উঠেছে, অযোধ্যা মেয়র ঋষিকেশ উপাধ্যায়ের ভাগ্নে দীপ নারায়ণ উপাধ্যায় রাম মন্দির ট্রাস্টের কাছে জমিটি অতিরিক্ত দামে বিক্রি করেন। অভিযোগর ভিত্তিতে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন দীপ নারায়ণের মামা। তাঁর অভিযোগ, এই মামলায় তাঁকে ফাঁসানো হচ্ছে।

দীপ নারায়ণের দাবি, রাম মন্দির ট্রাস্টের কাছে তিনি দু’টি জমি বিক্রি করেছিলেন। অভিযোগ, একটি ২০ লাখ টাকার জমি তিনি আড়াই কোটি টাকায় বিক্রি করেন। অন্যদিকে, অন্য জমিটি তিনি বিক্রি করেছেন এক কোটি টাকায়। এই জমিটির দাম সার্কেল রেটের হিসাবে পাওয়া গিয়েছে ২৭ লাখ টাকা। এরপরে অযোধ্যার মেয়র ঋষিকেশ উপাধ্যায়কে ঘিরেও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

ইরানের নয়া প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি, শুভেচ্ছা জানালেন মোদী
দীপ নারায়ণের এক কাকা পবন উপাধ্যায় এবার এই বিষয় নিয়ে মুখ খুলেছেন। তিনি অভিযোগ করেছেন, রাজনৈতিক ভাবে তাদের ফাঁসানো হচ্ছে। তাঁর দাবি, এই জমিটি সঠিক মূল্যেই কেনা বেচা হয়েছে। তাঁর বক্তব্য, তাঁদের পৈত্রিক জমিই তাঁরা ট্রাস্টকে বিক্রি করেছেন। যদিও কেন এক কোটি টাকায় এই জমি বিক্রি করা হয়েছে, তা নিয়ে মুখ খোলেন নি তিনি।

গোটা বিষয়টা কী?

ঋষিকেশ উপাধ্যায়ের ভাগ্নে দীপ নারায়ণ উপাধ্যায় চলতি বছরের ২০ ফেব্রুয়ারি অযোধ্যার মহন্ত দেবেন্দ্র প্রসাদ আচার্যের কাছ থেকে ২০ লাখ টাকায় জমি কেনে। তিন মাস পরে ১১ মে তিনি ওই জমি আড়াই কোটি টাকায় ট্রাস্টকে বিক্রি করেন বলে অভিযোগ। এছাড়াও তিনি আর একটি জমি এক কোটি টাকায় বিক্রি করেছিলেন বলে জানা গিয়েছে।
২৮ ঘন্টায় তৈরি ১০তলা বিল্ডিং! কেমন করে পারল চিন?
একই জমির দাম এত অল্প সময়ে কী করে এতটা বাড়তে পারে, তাই নিয়ে সরব হয়েছেন বিরোধীরা। জমি কেনা বেচায় দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সরব হয়েছে তাঁরা।

তবে গত সপ্তাহেই জমি কেলেঙ্কারির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে রাম মন্দির ট্রাস্ট। উলটে শ্রীরাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্রের দাবি, রাজনৈতিক কারণে জমি দুর্নীতির ‘বিভ্রান্তিকর’ অভিযোগ তোলা হয়েছে।






Source link