New Coronavirus Cases in India Last 24 Hours – দেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত প্রায় ৪ লাখ, মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৪৯৮ জনের | Eisamay

Share Now





হাইলাইটস

  • গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৪৫২ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৪৯৮ জনের।
  • দেশের করোনা পরিস্থিতি দিন দিন আরও ভয়াল হচ্ছে, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।
  • গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৯৭ হাজার ৫৪০ জন।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: আবার রেকর্ড দৈনিক সংক্রমণ, কোনওভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখী গ্রাফকে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৪৫২ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৪৯৮ জনের। দেশের করোনা পরিস্থিতি দিন দিন আরও ভয়াল হচ্ছে, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৯৭ হাজার ৫৪০ জন। এই মুহূর্তে দেশের ৩১ লাখ ৭০ হাজার ২২৮ জন মানুষ করোনায় আক্রান্ত। এখনও পর্যন্ত দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৮৭ লাখ ৬২ হাজার ৯৭৬ জন। করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ কোটি ৫৩ লাখ ৮৪ হাজার ৪১৮ জন এবং এখনও পর্যন্ত করোনা প্রাণ কেড়েছে ২ লাখ ৮ হাজার ৩৩০ জনের। করোনা থেকে মুক্তি পাওয়ার ক্ষেত্রে একটি অন্যতম হাতিয়ার হতে পারে টিকা। দেশজুড়ে চলছে টিকাকরণ কর্মসূচি। এই মুহূর্তে দেশের ১৫ কোটি ২২ লাখ ৪৫ হাজার ১৭৯ জন মানুষ টিকা পেয়েছেন।

করোনা ঝড়ে কাঁপছে গোটা দেশ। লাগামহীন সংক্রমণ রুখতে হিমশিম খাচ্ছেন সকলে। এই পরিস্থিতিতে এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে (PM Narendra Modi) কাঠগড়ায় তুললেন ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (IMA) ভাইস প্রেসিডেন্ট ডা. নভজ্যোত দাহিয়া (Navjot Dahiya)। মোদীকে ‘সুপার স্প্রেডার’ বলে আক্রমণ করে তিনি বলেছেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জন্য দায়ী প্রধানমন্ত্রীই।

জুন-জুলাইয়েই আছড়ে পড়বে করোনার তৃতীয় ঢেউ! প্রশাসনে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ উদ্ধবের
সংবাদমাধ্যমে নভজ্যোত দাহিয়া বলেছেন, ‘করোনায় সুরক্ষাবিধি সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে অবগত করতে যখন ঝাঁপিয়ে পড়েছে দেশের স্বাস্থ্য মহল, তখন কোনওরকম দ্বিধা না করেই সমস্ত কোভিড বিধি ভেঙে রাজনৈতিক সমাবেশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।’ তিন কৃষি আইনের প্রতিবাদের কৃষকদের আন্দোলন ইস্যুতেও প্রধানমন্ত্রী দায়িত্বশীল মনোভাব দেখাননি বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। উল্লেখ্য, ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ পরিস্থিতি মোকাবিলা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও মোদী সরকারের ভূমিকা. সমালোচনায় মুখর হয়েছে আন্তর্জাতিক মহলের একাংশও। এই প্রেক্ষিতে IMA-র ভাইস প্রেসিডেন্টের এ হেন মন্তব্য শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

সুখবর! Covishield-এর পর এবার টিকার দাম কমাল কোভ্যাক্সিনও
কিছুদিন আগে জাতির উদ্দেশে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘সকলে করোনা বিধি মেনে চলুন। অকারণে বাড়ির বাইরে বেরোবেন না। করোনা ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। কঠিন সময়ে ধৈর্য্য় হারালে চলবে না’। মোদী এও বলেছিলেন, ‘আপনারা সচেতন হলে, লকডাউনের কোনও প্রশ্নই নেই ।’ আরও একধাপ এগিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংযোজন, ‘দেশকে লকডাউনের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে।’ একইসঙ্গে রাজ্যগুলির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী পরামর্শ, ‘লকডাউন হোক সর্বশেষ বিকল্প। বরং মাইক্রো কন্টেইনমেন্ট জোনের উপর জোর দেওয়া হোক।’

টাটকা ভিডিয়ো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন এই সময় ডিজিটালের YouTube পেজে। সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন।






Source link