Narendra Modi: নজরে জম্মু-কাশ্মীর, সর্বদলীয় বৈঠক ডাকলেন মোদী – prime minister narendra modi has called an all-party meeting from jammu and kashmir

Share Now





হাইলাইটস

  • বৈঠকে জম্মু-কাশ্মীরের সব রাজনৈতিক দলের নেতারা উপস্থিত থাকতে পারেন।
  • সর্বদলীয় বৈঠক ঘিরে জল্পনা চরমে উঠেছে।
  • ২০১৯ এর অগস্টে অনুচ্ছেদ ৩৭০ বাতিল করে কেন্দ্র।

এইসময় ডিজিটাল ডেস্ক : জম্মু-কাশ্মীর ভিত্তিক একটি সর্বদলীয় বৈঠক ডাকলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সৃত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, আগামী সপ্তাহে বৃহস্পতিবার এই বৈঠক ডাকা হয়েছে। বৈঠকে জম্মু-কাশ্মীরের সব রাজনৈতিক দলের নেতারা উপস্থিত থাকতে পারেন। মনে করা হচ্ছে জম্মু-কাশ্মীর সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা সারতে পারে কেন্দ্র। অনুচ্ছেদ ৩৭০ বাতিল করার পর এই প্রথম জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে আলোচনায় বেঠক জাকলেন মোদী।

সূত্রের খবরে জানা গিয়েছে, জম্মু-কাশ্মীরের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কিছু নেতা-নেত্রীদের ইতিমধ্যেই এই বৈঠক সম্পর্কে অবহিত করা হয়েছে। তবে এখনও সরকারি ভাবে কোনও আমন্ত্রণ পাঠানো হয়নি বলেই জানা গিয়েছে।

অন্যদিকে, শুক্রবারই জাতীয় সুরক্ষা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল, জম্মু ও কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিং সহ শীর্ষ সুরক্ষা ও গোয়েন্দা আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

এখনও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীই বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা: সমীক্ষা
সর্বদলীয় বৈঠক ঘিরে জল্পনা চরমে উঠেছে। কেন্দ্রের দাবি, তবে কি ফের একবার রাজ্যের মর্যাদা ফিরে পেতে চলেছে জম্মু-কাশ্মীর? এই প্রশ্নই এখন জোরালো হয়ে উঠতে শুরু করেছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ এর অগস্টে অনুচ্ছেদ ৩৭০ বাতিল করে কেন্দ্র। ফলে জন্মু-কাশ্মীরকে দেওয়া বিশেষ মর্যাদাও লোপ পায়। পাশাপাশি জম্মু ও কাশ্মীরকে ভেঙে দুটি কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল পরিণত করা হয়। কেন্দ্রের বক্তব্য ছিল, জম্মু কাশ্মীরে শান্তি ফেরাতেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হল।

অন্যদিকে সম্প্রতি কাশ্মীর নিয়ে সুর চড়িয়েছে পাকিস্তানও। পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, কাশ্মীরে ভারতের আর কোনও পদক্ষেপ পুরো এলাকার আঞ্চলিক শান্তি ও নিরাপত্তা বিপন্ন হতে পারে। রাষ্ট্রসংঘে চিঠি লিখে পাকিস্তানের দাবি, ভারত কাশ্মীরের ডেমোগ্রাফিক কাঠামো পাল্টানোর চেষ্টা করছে।

‘ভাইরাস এখনও রয়েছে’, সতর্ক করে Crash Course-এর ঘোষণা মোদীর
পাকিস্তানের এই আচরণের অবশ্য কড়া জবাব দিয়েছে ভারতও। দেশের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন, ‘জম্মু ও কাশ্মীর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ও ভারতের একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। বাস্তবকে কখনই পরিবর্তন করা যায় না। সীমান্তে সন্ত্রাসবাদও গ্রহণযোগ্য নয় এবং কোনও যুক্তি-তর্কের মাধ্যমে এটা মেনে নেওয়া যেতে পারে না।’ অরিন্দম বাগচি রাষ্ট্রসংঘে জানিয়েছেন, এ নিয়ে ভারতের মতামত জানানোর জন্য ভারতে ডেকে পাঠানো হোক।






Source link