Munmun Dutta: প্যান্টে হাত ঢুকিয়েছিল আমার টিচার! বিস্ফোরক মুনমুন – television actress munmun dutta speak about sexual harassment on social media

Share Now





মুনমুনের #MeToo

-metoo

যৌন নির্যাতনের বিরুদ্ধে এবার প্রকাশ্যে মুখ খুললেন অভিনেত্রী মুনমুন দত্ত৷ মি টু ক্যাম্পেনে অংশ নিয়ে মুনমুন স্পষ্ট জানান, তিনি ছোটবেলা থেকে বহুবার যৌন নির্যাতনের স্বীকার হয়েছেন এবং এই নির্যাতন তাঁর পরিবারের লোকেরাই করেছে৷ এটাও স্পষ্ট জানিয়েছেন অভিনেত্রী মুনমুন৷ সোশাল মিডিয়ায় অভিনেত্রী মুনমুন জানান, ১৩ বছর বয়স হওয়ার পর থেকেই পাশের বাড়ির কাকা, তাঁর তুতো ভাইয়েরা এবং তাঁর গৃহশিক্ষকও যৌন হেনস্থা করেছে৷ (ছবি- ইনস্টাগ্রাম)

কাকার হাতে নিগ্রহ

এখনও ঘটনাটি মনে পড়লে চোখ দিয়ে জল বেরিয়ে আসে৷ এখনও বুকের ভিতর ভয় হয়৷ নিজের উপর রাগ হয়, কেন তখন কিছু বলতে পারেনি৷ তখন আমার ১৩ বছর বয়স৷ ধীরে ধীরে শরীরে নারীত্ব ফুটে উঠছে৷ এই সময়ই পাশের বাড়ির এক কাকু আমাকে একলা পেয়ে জড়িয়ে ধরেছিল৷ তারপর বাজে ভাবে আচরণ করছিল৷ এখন সেটা মনে পড়লে বমি পায়৷ (ছবি ইনস্টাগ্রাম)

নোংরা ছোঁয়া

আমার পিসতুতো, খুড়তুতো ভাই-দাদারাও সুযোগ নিয়েছে৷ সবার থেকে ছোট ছিলাম আমি৷ আমাকে অনেকেই জন্মাতে দেখেছিল৷ তবুও টখন বড় হচ্ছিলাম৷ তাঁদের নজর আমার শরীরের প্রতি বেশি ছিল৷ আমার এক আত্মীয়ের তো আমার বয়সী একটা মেয়ে আছে৷ কিন্তু তাঁর নোংরা নজর থেকে বাঁচতে পারিনি আমি৷ (ছবি ইনস্টাগ্রাম)

টিচারের নোংরামো

বাড়িতে আমাকে পড়াতে আসতেন এক টিচার৷ তখন আমার বয়স ১৩৷ প্রথম প্রথম বুঝতে পারতাম না৷ পরের দিকে বুঝতে পারলাম আমার প্রতি টিচারের নোংরা নজর রয়েছে৷ একবার সুযোগ পেয়ে আমার প্যান্টে হাত ঢুকিয়ে দিয়েছিল গৃহশিক্ষক৷ সে কথা ভাবলে আজও রাগ হয়৷ কিন্তু তখন এতটাই ছোট ছিলাম যে ভয়ে কাউকে কিছু বলতে পারিনি৷ কিন্তু আমার মনে হয় অন্যায়ের বিরুদ্ধে সব সময় গর্জে ওঠা উচিত৷ (ছবি ইনস্টাগ্রাম)






Source link