meme on dipsita and minakshi: মীনাক্ষী-দীপ্সিতাকে নিয়ে ভাইরাল কুরুচিকর মিম, কী জবাব দিলেন তরুণ CPIM প্রার্থীরা? – meme goes viral over social media on cpim candidate dipsita dhar and minakshi mukherjee

Share Now





হাইলাইটস

  • ২১-এর বিধানসভা ভোটে হাইভোল্টেজ প্রার্থীদের লড়াইয়ের মাঝেই জায়গা করে নিয়েছে CPIM-এর একঝাঁক তরুণ তুর্কী।
  • তাঁদের নিয়েই কুরুচিকর মিম ভাইরাল হল নেটদুনিয়ায়।
  • রবিবার সন্ধ্যা থেকেই আচমকা ফেসবুকে ভাইরাল হয় একটি মিম।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: ২১-এর বিধানসভা ভোটে হাইভোল্টেজ প্রার্থীদের লড়াইয়ের মাঝেই জায়গা করে নিয়েছে CPIM-এর একঝাঁক তরুণ তুর্কী। একদিকে যখন তৃণমূল ও BJP-র প্রার্থী তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের সেলেবরা, তখন বামেদের তুরুপের তাস দীপ্সিতা ধর (Dipsita Dhar), মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায় (Minakshi Mukherjee), ঐশী ঘোষের মতো নবীন প্রজন্ম। এবার তাঁদের নিয়েই কুরুচিকর মিম ভাইরাল হল নেটদুনিয়ায়। পালটা মোক্ষম উত্তর দিলেন তরুণ নেত্রীও।

রবিবার সন্ধ্যা থেকেই আচমকা ফেসবুকে ভাইরাল হয় একটি মিম। ‘মিমতন্ত্র’ নামে একটি ফেসবুক গ্রুপে জনৈক শ্রীপর্ণা রয় মিমটি শেয়ার করেন। যেখানে BJP প্রার্থী পায়েল সরকার ও শ্রাবন্তী এবং তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ও নুসরতের সঙ্গে তুলনা টাকা হয় দীপ্সিতা ধর ও মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়ের। তারকা প্রার্থীদের কাছে গ্ল্যামার ও জৌলুসে অনেকটাই পিছিয়ে CPIM প্রার্থী তাই তাঁদের ‘কাজের মাসি’ বলে উল্লেখ করা হয়। মিমটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই তীব্র প্রতিবাদ করেন নেটিজেনরা। মিমটি নজরে এসেছে CPIM-এর বালি বিধানসভার প্রার্থী দীপ্সিতা ধরেরও। সঙ্গে সঙ্গেই পালটা কড়া উত্তর দেন প্রার্থী। কী বলেন দীপ্সিতা? তার কথায়, ‘ওরা কি ভেবে লিখেছে, কেন লিখেছে তার জবাব দেওয়ার কোনো প্রশ্নই নেই। কথা হলো, যে শ্রেণীর লড়াই আমরা লড়ি তাদের সাথে, তাদের দাবীদাওয়ার সাথে মানিয়ে নিতে আমাদের কখনই অসুবিধা হয় না। আমাদের নির্বাচনের সময় মমতা ব্যানার্জী-র মত মিথ্যার বেসাতি করে বলতে হয়না- “আপনার বাড়ির বাসন মেজে দেব”। গৃহপরিচারিকাদের জন্য, লকডাউনে তাদের বেতনের জন্য, তাদের সুরক্ষার প্রশ্নে দাবীদাওয়ার লড়াই বামপন্থীরা করেছে ও করবে।’
সবশেষে JNU বিশ্ববিদ্যালয়ের এই ছাত্রীর জবাব, ‘ওদের জ্বলবে, আমাদের এমনিই চলবে’

দীপ্সিতা ও মীনাক্ষীর পাশে দাঁড়িয়েছেন অভিনেত্রী তথা বাম সমর্থক শ্রীলেখা মিত্রও। তাঁর কথায়, ‘তোমাদের ওরা ভয় পাচ্ছে। তাই এইধরণের কুরুচিকর মিম। নিজেদের লক্ষ্যে এগিয়ে যাও।’
৩৪ বছরে বেশ কিছু ভুল হয়েছিল, মানছেন দীপ্সিতা

এবারের বিধানসভায় বালির প্রার্থী দীপ্সিতা বেশ চর্চিত। নন্দীগ্রামের মতো হাইভোল্টেজ কেন্দ্রের প্রার্থী হয়ে শিরোনামে জায়গা করে নিয়েছেন মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়ও। তাঁদের নিয়ে কুরুচিকর মিমে বডি শেমিং করা হয়েছে। পাশাপাশি পরিচারিকা শ্রেণীর মানুষদের প্রতি অসম্মানও দেখানো হয়েছে। এমনটাই অভিযোগ এনেছে CPIM সমর্থকরা। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে এর প্রতিবাদ শুরু হয়েছে। কেউ বলছেন, বামেরা সারাবছর পরিচারিকা এবং শ্রমিক শ্রেণীর লড়াইয়ে সঙ্গ দেন। তাই দীপ্সিতা কিংবা মীনাক্ষী তথাকথিত ‘কাজের মাসি’-দের প্রতিনিধি। কেউ কেউ আবার দীপ্সিতা ও মীনাক্ষীর শিক্ষাগত যোগ্যতার তুলনা টেনেছেন BJP ও তৃণমূলের সেলেব প্রার্থীদের সঙ্গে।

টাটকা ভিডিয়ো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন এই সময় ডিজিটালের YouTube পেজে। সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন।






Source link