Madan Mitra Election Campaign For West Bengal Assembly Election 2021 In Kamarhati – খেলা কিন্তু ‘লাভলি’ হবে, বলছেন লিটল স্টার, ক্যাপ্টেন মদন | Eisamay

Share Now





হাইলাইটস

  • সকাল ৮টায় ঘুম থেকে তড়িঘড়ি উঠে স্নান, পুজো সেরে এক কাপ গ্রিন টি, তারপর গরম জলে গুলে প্রোটিন দুধ খেতে খেতে খবরের কাগজে চোখ বুলিয়ে ফ্ল্যাট থেকে নীচে নামলেন কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী।
  • চোখে সানগ্লাস, মাথায় পাগড়ি।
  • দাদার সাজ দেখে কর্মীদের মুখে ‘খেলা হবে’ স্লোগান।

অশীন বিশ্বাস, কামারহাটি
দক্ষিণেশ্বরে তাঁর ফ্ল্যাটের নীচে একটি গাড়িতে পরপর সাজানো ডিজে সাউন্ড বক্স। তাতে গান বাজছে ‘ও লাভলি’। অপেক্ষায় কর্মীরা কখনও গানের তালে কোমরও দুলিয়ে নিচ্ছেন। সকাল ৮টায় ঘুম থেকে তড়িঘড়ি উঠে স্নান, পুজো সেরে এক কাপ গ্রিন টি, তারপর গরম জলে গুলে প্রোটিন দুধ খেতে খেতে খবরের কাগজে চোখ বুলিয়ে ফ্ল্যাট থেকে নীচে নামলেন কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী। ঘড়ির কাঁটায় তখন সকাল ৯টা। পরনে সাদা ধুতি-পাঞ্জাবি, গলায় লাল হলুদ চেলি। চোখে সানগ্লাস, মাথায় পাগড়ি। দাদার সাজ দেখে কর্মীদের মুখে ‘খেলা হবে’ স্লোগান।

তার পর হুড খোলা জিপে দৈনিক প্রচার শুরু কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্রের। প্রচার শেষে দুপুর আড়াইটে নাগাদ ফ্ল্যাটে ফেরা, বিকেল সাড়ে চারটেয় আবার বেরিয়ে পড়ছেন প্রচারে৷ তার পর দলীয় কর্মীদের নিয়ে জায়গায় জায়গায় মিটিং সেরে বাড়ি ফিরছেন মধ্যরাতে। মদন মানেই তাঁকে ঘিরে অনুগামীদের ভীড়। সঙ্গে গরম গরম ভাষণ। শ্লোক বলাতেও মদনের জুড়ি মেলা ভার। প্রচারে সেই ভাষণ এবং শ্লোক কর্মীদের চাঙ্গা রাখার অন্যতম প্রধান ওষুধ।

সাজপোশাক, কথাবার্তায় ভোট ময়দানে মদন একপ্রকার সেলিব্রিটি। যদিও মদন বলছেন, ‘আমি সুপারস্টারও নয়, মেগাস্টারও নয়; আমি টুইঙ্কল টুইঙ্কল লিটল স্টার’। সেই স্টারই এখন ধুতি পাঞ্জাবি পরে বুকে দলের প্রতীক জোড়া ফুল চিপকে কখনও পায়ে হেঁটে, আবার কখনও হুড খোলা জিপে প্রচারে বলছেন, ‘বাংলা নিজের মেয়েকে চায়’। প্রায় প্রতিদিনই তাঁর হয়ে প্রচারে থাকছেন কোনও না কোনও সেলিব্রিটি। রাস্তার ধারে উৎসুক মানুষের ভীড়ে সেই তারকাকে নিয়ে মিশে যাচ্ছেন প্রার্থী মদন। রানি রাসমণি সিরিয়ালের টিম, নচিকেতা, কবীর সুমন, মানালি, শ্রীতমা, নুসরত, রূপঙ্কর, মহিমা চৌধুরী, দেব ইতিমধ্যেই মদন মিত্রর হয়ে প্রচার সেরেছেন।

প্রচারে বেরিয়ে বিক্ষোভের মুখে, ভাইরাল ভিডিয়ো নিয়ে মুখ খুললেন BJP প্রার্থী?
প্রার্থী মদন যখন নিজেই ‘তারকা’, তখন এত সেলিব্রিটির কি প্রয়োজন? মদনের জবাব, ‘ওঁদের প্রত্যেকের সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত সম্পর্ক। তাই। ওঁরা আমার প্রচারে আসছেন এবং মানুষকে আমার সঙ্গে থাকার জন্য বলছেন।’

গতবারও কামারহাটি থেকে তৃণমূলের প্রার্থী হন মদন মিত্র। কিন্তু জেলে থাকায় প্রচার করতে পারেননি। তাঁর হয়ে স্ত্রী এবং দুই পুত্র, এমনকী পুত্রবধূও প্রচার করেছিলেন। মদনের মন্তব্য, ‘গতবার অধিনায়ক ছাড়া টিম ছিল। এ বার অধিনায়ক মাঠে নেমেছে। সুতরাং, লড়াইটা কঠিন না সহজ, সেটা বিরোধীরাই বলতে পারবে।’ এই কেন্দ্রে এবার সিপিএমের প্রার্থী তরুণ মুখ সায়নদীপ মিত্র। উল্টোদিকে বিজেপির রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে সিপিএমই যে তাঁর প্রতিপক্ষ, তা স্পষ্ট করছেন মদন। বলছেন, ‘কিছু বামপন্থী ভোট এ বার আমার ঝুলিতে আসবে। আমি রাজনীতির রং দেখে মানুষের উপকার করি না। বাকিটা ভোটের পরে বলব’।

মানুষে যেমন তাঁর আস্থা, তেমনই ঈশ্বরে। তাই, প্রচারে বেরনোর আগে ফ্ল্যাটে প্রতিদিন রাম ঠাকুর এবং মা ভবতারিণীর পুজো করে বেরোচ্ছেন। মদন বলছেন, ‘না হিন্দু, না মুসলমান; সবসে পহেলে ম্যায় ইনসান’। তাঁর কথায়, কিছু গদ্দারকে সাথে নিয়ে যারা মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরি করার চেষ্টা করছে, তাদের শুধু কামারহাটি নয়, গোটা বাংলার মানুষ ক্ষমা করবে না। প্রার্থীর দাবি, ‘খেলতে আপত্তি নেই। কিন্তু খেলাটা লাভলি হবে!’

টাটকা ভিডিয়ো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন এই সময় ডিজিটালের YouTube পেজে। সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন।






Source link