lockdown news: পরিস্থিতি অত্যন্ত উদ্বেগজনক, লকডাউন নিয়ে বড় ঘোষণা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর – covid situation of delhi is much more dangerous says chief minister of delhi arvind kejriwal

Share Now





হাইলাইটস

  • পরিস্থিতি আগের থেকেও অনেক বেশি উদ্বেগজনক, রবিবার এমনটাই জানালেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।
  • টিকাকরণের ক্ষেত্রে বয়সের সীমাবদ্ধতা তুলে দেওয়ার জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদনও জানিয়েছেন তিনি।
  • কেজরিওয়াল জানান, ‘করোনার প্রথম ঢেউ যখন আছড়ে পড়ে, তার থেকেও পরিস্থিতি খারাপ এই মুহূর্তে।’

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: পরিস্থিতি আগের থেকেও অনেক বেশি উদ্বেগজনক, রবিবার এমনটাই জানালেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। টিকাকরণের ক্ষেত্রে বয়সের সীমাবদ্ধতা তুলে দেওয়ার জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদনও জানিয়েছেন তিনি।

কেজরিওয়াল জানান, ‘করোনার প্রথম ঢেউ যখন আছড়ে পড়ে, তার থেকেও পরিস্থিতি খারাপ এই মুহূর্তে।’ লকডাউনের মাধ্যমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা না গেলেও কড়া হাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা পরিস্থিতির একমাত্র সমাধান, দাবি কেজরির।

এদিন আম আদমি পার্টি সুপ্রিমো তথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল জানান, ‘বিগত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লিতে ১০ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। করোনার এই ঢেউ আরও মারাত্মক।’ তিনি আরও বলেন, ‘মার্চ মাসের ১৫ তারিখ পর্যন্ত দৈনিক সংক্রমণ ২০০ জনেরও নীচে ছিল। কিন্তু বিগত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীতে ১০ হাজার ৭৩২ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সংখ্যাটা শনিবার ছিল ৭ হাজার ৮৯৭ জন এবং শুক্রবারে ৮ হাজার ৫০০ জন । বিগত ১০ থেকে ১৫ দিনে সংক্রমণ ছড়িয়েছে হুহু করে, দাবি কেজরির।

‘করোনা ঠেকাতে’ মাস্ক খুলে বিমানবন্দরে পুজো BJP মন্ত্রীর
প্রসঙ্গত. দেশজুড়ে হুহু করে বাড়ছে করোনা। মারণ ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউকে রুখতে গতকাল টিকাকরণে জোর দেওয়ার কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। করোনা রুখতে আজ থেকে শুরু হয়েছে টিকা উৎসব।যদিও মহারাষ্ট্র, ওড়িশা, ছত্তিশগড়ের মতো রাজ্যগুলিতে করোনা টিকার আকাল দেখা দিয়েছে ইতিমধ্যেই। ফলত নতুন করে টিকাকরনের ক্ষেত্রে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। তবে আর দেশে লকডাউন দরকার নেই, সে কথাও জানিয়েছেন মোদী। তাঁর কথায়, ‘কঠিন সময় আসছে।’ করোনা ভাইরাসকে রুখতে দেশের নয়া প্রজন্মকে এগিয়ে আসতে বলার পাশাপাশি করোনা কার্ফু চালুর কথা বলেছিলেন মোদী। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র সহ বিভিন্ন রাজ্যে নাইট কার্ফু শুরু হয়ে গিয়েছে। তারই নাম পরিবর্তন করেছেন PM Narendra Modi।

দ্রুত গতিতে করোনা বাড়ার কারণে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালের শয্যার সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। দিল্লির রাজীব গান্ধী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল করোনা ছাড়া বাকি সব পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছে। এদিকে বাংলায় করোনা পরিস্থিতি ফের খারাপ দিকে যাওয়ায় নবান্নও সাবধানতা অবলম্বনের পথে হাঁটছে। ইতিমধ্যেই ৫০ শতাংশ সরকারি কর্মী নিয়ে কাজের নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

টাটকা ভিডিয়ো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন এই সময় ডিজিটালের YouTube পেজে। সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন।






Source link