kiff 2021: ভার্চুয়াল উদ্বোধনেও সুর মিলল সিনেমাওয়ালাদের – shah rukh khan addresses kiff 2021, all you need to know about kiff

Share Now





এই সময়: রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২৬ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ভার্চুয়াল উদ্বোধন করলেন শুক্রবার নবান্ন সভাঘর থেকে। নন্দন-রবীন্দ্রসদন চত্বরে বিভিন্ন জায়েন্ট স্ক্রিনে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান লাইভ দেখানো হল। তা ছাড়াও শুরু থেকে শেষ, এই অনুষ্ঠান রবীন্দ্রসদনে দেখানো হল। নন্দন-রবীন্দ্রসদন চত্বরে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখার জন্য যথেষ্ট ভিড় হয়েছিল। অবশ্য রবীন্দ্রসদন প্রেক্ষাগৃহের মধ্যে ৫০ শতাংশ দর্শক নিয়েই এই লাইভ অনুষ্ঠান দেখানো হয়েছে।

এই অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি উপস্থিত রইলেন বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্ব্যাসাডর বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খান। তিনি ছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মুম্বই থেকে উড়ে আসা পরিচালক অনুভব সিনহা, যিনি আজ শনিবার সত্যজিৎ রায় স্মারক বক্তৃতা দেবেন। উপস্থিত ছিলেন টলিউডের তারকারাও। এঁদের মধ্যে ছিলেন গৌতম ঘোষ, রঞ্জিত মল্লিক, অরিন্দম শীল, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, হরনাথ চক্রবর্তী, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, দেব, শতাব্দী রায়, পাওলি দাম, পৌলোমী চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ।

রবীন্দ্রসদনে উদ্বোধনী ছবি হিসেবে এর পর দেখানো হয় সত্যজিৎ রায় পরিচালিত ‘অপুর সংসার’। অনুষ্ঠানের শুরুতে চলচ্চিত্র উৎসবের অধিকর্তা রাজ চক্রবর্তী বলেন, ‘অতিমারির কারণে এ বারের উৎসব বাস্তবায়িত করা যথেষ্ট সমস্যার ছিল। এই সমস্যার সমাধানের, এই উৎসবকে বাস্তবায়িত করার সমস্ত কৃতিত্ব মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এ বারের উৎসব অন্যবারের তুলনায় আয়তনে সামান্য ছোট, তবু গুণগত মান একই আছে।’

রাজ আরও জানালেন, ‘এবারে অতিমারীর কারণেই প্রবেশে কিছুটা কড়াকড়ি করতে হয়েছে।’ এরপরে শতবর্ষ উদ্‌যাপন নিয়ে একটি চমৎকার ক্লিপিং দেখানো হয়। ফেলিনি, এরিখ রোমার, রবি শঙ্কর, ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় এবং হেমন্ত মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে। হেমন্তের গলায় শোনা গেল এমন সব গান যা নস্টালজিয়া উস্কে দিল। একই রকম আবেগ উথলে উঠল সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে ক্লিপিং দেখানোর সময়েও। এ বারের উৎসবে সৌমিত্রের একগুচ্ছ ছবির প্যাকেজ থাকবে।

এরপর অনুষ্ঠান সঞ্চালক পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় এবং জুন আমন্ত্রণ জানালেন শাহরুখ খানকে এই অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি উপস্থিত থাকতে। শাহরুখ এবং মমতা প্রথমেই নিজেদের মধ্যে কুশল বিনিময় করলেন। শাহরুখ জানালেন, ‘এ বার সশরীরে থাকতে পারলাম না বলে খুব খারাপ লাগছে। এই রাজ্যের ব্র্যান্ড অ্যাম্ব্যাসেডর হওয়ার সুবাদে এই খারাপ লাগাটা আরও বেশি। অতিমারী এ বার খুব ক্ষতি করেছে আমাদের। তবে ঈশ্বরের কৃপায় আমরা অনেকেই বেঁচে আছি। ২০২১ সালে আমার এবং আমার মতো সবারই উচিত এমন কিছু করা যাতে পৃথিবীর সবাই শান্তিতে থাকে, আনন্দে থাকে। আমি নাচতে-গাইতে পারি, আর বিশেষ কিছু পারি না। মানুষকে, আমাদের পরিবারকে আনন্দে রাখার জন্য। বাংলাকে ভালোবাসি। এ বার আসতে পারলাম না, কিন্তু খুব শিগগিরি আসছি। উৎসবের সাফল্য কামনা করছি।’ সব শেষে শাহরুখ মমতার কাছে প্রতিজ্ঞা করলেন যে রাখিবন্ধনে এই শহরে অবশ্যই আসবেন।

পরিচালক অরিন্দম শীলকে সঙ্গে নিয়ে নবান্নে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে উৎসব চত্বর পর্যবেক্ষণ করতে আসেন রাজ। গগনেন্দ্র প্রদর্শনালয়ে দুটি প্রদর্শনী আরম্ভ হবে আজ, শনিবার থেকে। একটি সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে, অন্যটি ভানু বন্দ্যেপাধ্যায়কে নিয়ে। সৌমিত্রের প্রদর্শনীতে দেখা যাবে তাঁর অভিনীত বিভিন্ন নাটকের পোশাক। সৌমিত্রের প্রদর্শনী আজ উদ্বোধন করবেন অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

উৎসব উদ্বোধক মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রথমেই উপস্থিত সুধীজনেদের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। বলেন, খানিক আগে হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের গান শুনতে শুনতে মন ভালো হয়ে গিয়েছিল, কিন্তু সৌমিত্রের ক্লিপিং দেখার সময় মনটা খারাপ হয়ে যায়। মনে পড়ে গিয়েছিল সৌমিত্রের শেষ দিনগুলোতে তাঁর স্মৃতি। বললেন, ‘কোভিড পরিস্থিতিতে এই উৎসব হলেও উৎসবের মান এতটুকু কমেনি। আন্তর্জাতিক ডেলিগেটরা আসতে পারেননি, কিন্তু দূতাবাসগুলো খুব সাহায্য করেছে। আমাদের এ বারের উৎসব ছোট। তবু তো আমরা করতে পারছি। অনেকে পারেনি তাদের সাহস নেই বলে। আমাদের সাহস আছে বলেই পেরেছি।’

উদ্বোধনে অন্যান্যবারের মতো নন্দন চত্বরে ভিড় না দেখা গেলেও, মানুষ কিন্তু উৎসব শুরু হতেই ধীরে, ধীরে আসতে শুরু করেছেন। উৎসব চত্বরে নানা ইন্সটলেশন, কোথাও চায়ের কেটলি, কোথাও মছলিবাবার মূর্তি, আর তার সামনে সেল্ফি তোলার জন্য উৎসাহও ছিল দেখার মতো।






Source link