Dharna Protest: প্রেমিকাকে ফিরে পেতে যুবকের হাতিয়ার সেই ‘ধরনা’ – lover sits on dharna in front of girlfriend’s house in malda

Share Now





হাইলাইটস

  • স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রেমিকা মমতা দাসের বাড়ির অদূরে ধরনায় বসেন ওই যুবক।
  • দীর্ঘ কয়েক বছর ধরেই তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক ছিল বলে দাবি ওই যুবকের।
  • তবে গত কয়েক মাস ধরে সম্পর্কে টানাপোড়েন চলছিল বলেও জানা গিয়েছে।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: ছেড়ে যাওয়া প্রেমিকাকে ফিরে পেতে বাড়ির সামনে ধরনায় বসলেন এক যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার বামনগোলা পাকুয়াহাট অঞ্চলের কামারডাঙা গ্রামে। সঞ্জয় মণ্ডল নামে ওই যুবকের বাড়ি পাকুয়াহাটেরই মির্জাপুর এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রেমিকা মমতা দাসের বাড়ির অদূরে ধরনায় বসেন ওই যুবক। দীর্ঘ কয়েক বছর ধরেই তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক ছিল বলে দাবি ওই যুবকের। তবে গত কয়েক মাস ধরে সম্পর্কে টানাপোড়েন চলছিল বলেও জানা গিয়েছে।

এরপর শনিবার তিনি ধরনায় বসেন। সঞ্জয় মণ্ডল বলেন, ‘গত একমাস ধরে যোগাযোগ করা যায়নি। পরে জানতে পারি, ওর বিয়ে ঠিক হয়েছে, সে কারণেই আমি ধরনায় বসি। এ ছাড়া আমার আর কোনও পথ ছিল না।’

হাতে মেয়েটির ছবি সহ প্ল্যাকার্ড নিয়ে ধরনায় বসেন। প্ল্যাকার্ডে লেখা হয়েছিল, ‘মমতা আমার আট বছরের ভালবাসার দাম দাও।’ এদিন এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। এলাকার লোকজন প্রেমিককে দেখতে এলাকায় ভিড় জমায়। তাঁকে নিয়ে হাসি ঠাট্টাও করা হয়।

প্রথম উদাহরণ তৈরি করেছিলেন জলপাইগুড়ির অনন্ত বর্মণ। ছেড়ে যাওয়া প্রেমিকাকে ফেরৎ পেতে প্ল্যাকার্ড হাতে প্রেমিকার বাড়ির সামনেই ধরনায় বসেছিলেন তিনি। প্রেম ফেরানোর সেই যুদ্ধে অবশ্য প্রেমিকেরই জয় হয়েছিল। সেই প্রেমিকাকেই বিয়ে করেছিলেন অনন্ত।

তাজপুরে অসুস্থ বৃদ্ধাকে ফেলে দিয়ে গেল পরিবারের লোকজন

এরপর একে একে উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গ একাধিক জায়গায় এই ট্রেন্ড দেখা যায়। কিছু ক্ষেত্রে সাফল্যও এসেছে এই ফর্মূলায়।

টাটকা ভিডিয়ো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন এই সময় ডিজিটালের YouTube পেজে। সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন।






Source link