daily covid update: সামান্য বাড়ল দৈনিক সংক্রমণ, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে কোভিডের বলি ৩ হাজার পার – india see 132788 new covid cases in last 24 hours

Share Now





হাইলাইটস

  • ফের বাড়ল করোনা সংক্রমণ।
  • এদিকে বাড়ছে করোনায় মৃত্যুর হারও।
  • গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ৭৮৮ জন।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বাড়ল করোনা সংক্রমণ। এদিকে বাড়ছে করোনায় মৃত্যুর হারও। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ৭৮৮ জন। গতকাল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১ লাখ ২৭ হাজার ৫১০ জন। আক্রান্তের সংখ্যা অপেক্ষাকৃত কমলেও উদ্বেগ বাড়িয়ে মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ২০৭ জনের। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেড়েছে মৃত্যুর হার এবং তা চিন্তার কারণ বিশেষজ্ঞদের।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৩১ হাজার ৪৫৬ জন। এই মুহূর্তে দেশে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ লাখ ৯৩ হাজার ৬৪৫ জন। এদিকে সাধারণ মানুষকে করোনাভাইরাসের থাবা থেকে রক্ষা করতে টিকাকরণে জোর দেওয়া হচ্ছে। এখনও পর্যন্ত টিকা পেয়েছেন ২১ কোটি ৮৫ লাখ ৪৬ হাজার ৬৬৭ জন দেশবাসী।

এদিকে, কোভিড চিকিৎসায় এলি লিল্লি অ্যান্ড কোম্পানী নামক ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থার তৈরি ড্রাগকে ছাড়পত্র দিয়েছে ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া (DCGI)।বামলানিভিমাব ৭০০ মিলিগ্রাম এবং এটিসিভিমাব ১,৪০০ মিলিগ্রামের কম্বিনেশন মৃদু এবং মাঝারি উপসর্গবিশিষ্ট রোগীদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যাবে।

সুখবর, হাতে এল করোনার ওষুধ ‘ভিরাফিন’
লিল্লি ইন্ডিয়ার ম্যানেজিং ডিরেক্টর লুকা ভিসিনি জানান, আমরা অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি, ভারতে কোভিড রোগীদের চিকিৎসায় আরও একটি ওষুধ আসতে চলেছে বাজারে। করোনা মহামারী রুখতে বদ্ধপরিকল লিল্লি। এক্ষেত্রে করোনা রোগীদের একসঙ্গে বামলানিভিমাব ৭০০ মিলিগ্রাম এবং এটিসিভিমাব ১,৪০০ মিলিগ্রামের কম্বিনেশন ইঞ্জেক্ট করতে হবে। ১২ বছর এবং এর ঊর্ধ্ব বয়সসীমার কোভিড রোগীদের ক্ষেত্রে এই ড্রাগ ব্যবহার করা যাবে।এই ওষুধ ব্যবহারে করোনা রোগীরা দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছেন, গবেষণায় জানা যাচ্ছে এমনটাই। এই দুই ড্রাগের কম্বিনেশন কোভিড রোগীদের উপরে ব্যবহারের ছাড়পত্র দিয়েছে US এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের বেশ কিছু দেশ।

‘ভিরাফিন’-এর হাত ধরেই করোনা মুক্তি! চিকিৎসকরা কী বলছেন?
প্রসঙ্গত, এর আগে করোনা রোগীদের ক্ষেত্রে জাউডাস ক্যাডিলা ( Zydus Cadila)-র ড্রাগ ‘ভিরাফিন'(Virafin) ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছিল ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া(DGCI)। এই ড্রাগ ব্যবহারের করলে শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতির সম্ভাবনা অনেকটাই কমবে। শুধু তাই নয়, মৃদু উপসর্গবিশিষ্ট রোগীদের ক্ষেত্রে এই ড্রাগ বিশেষভাবে কার্যকরী হবে বলে জানিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরা।






Source link