covid-19: মৃতদেহ নিয়ে ব্যবসা? Covid দেহ সৎকারে ১২ হাজার টাকার প্যাকেজ পুরকর্মীদের! – two volunteers receive money for the last rites of a women who died with covid 19

Share Now





হাইলাইটস

  • কোভিড রোগীর দেহ নিয়েও ব্যবসা ফেঁদে বসেছেন অনেকেই।
  • এবার কোভিডে মৃত বৃদ্ধার দেহ সৎকারের জন্য ১২ হাজার টাকা চায়ল দুই পুরকর্মী।
  • সম্প্রতি বেঙ্গালুরুতে ঘটেছে এই ঘটনাটি।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: করোনায় জেরবার গোটা দেশ। মাস্ক, অক্সিজেন, পিপিই কিটের কালোবাজারির নিয়ে উঠছে একাধিক অভিযোগ। কিন্তু মৃত্যুর পর কোভিড রোগীর দেহ নিয়েও ব্যবসা ফেঁদে বসেছেন অনেকেই। এবার কোভিডে মৃত বৃদ্ধার দেহ সৎকারের জন্য ১২ হাজার টাকা চায়ল দুই পুরকর্মী।

সম্প্রতি বেঙ্গালুরুতে ঘটেছে এই ঘটনাটি। অভিযোগ, কোভিডে মৃত ৭৯ বছরের এক বৃদ্ধার দেহ দাহ করার জন্য তাঁর পরিবারের থেকে ১২ হাজার টাকা চান দুই ব্যক্তি। মৃতার পরিবারকে তারা জানায়, বেঙ্গালুরু পুরসভার কর্মী তারা। পরে বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশে খবর দেন এক অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার।

বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস শহরে, কমবে তাপমাত্রা
সূত্রের খবর, অভিযুক্ত দুই ব্যক্তির নাম শিবান্থ এবং সেলভি মিনাল। তাদের থেকে তথ্য এবং সম্প্রচার দফতর এবং রেড ক্রসের ভুয়ো পরিচয়পত্র পেয়েছে পুলিশ। রোগীর পরিবারের থেকে নেওয়া ১২ হাজার টাকাও বাজেয়াপ্ত করেছেন তদন্তকারীরা। পুলিশের তরফে জানানো হয়, বেঙ্গালুরুর জে পি নগরের বাসিন্দা হিমা রামান(৭৯) করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। বৃহস্পতিবার বিকেল ৫ টা ৩০ নাগাদ মৃত্যু হয় তাঁর। হাসপাতালের তরফে বৃদ্ধার ছেলে শ্রীনিবাস মূর্তিকে বিষয়টি জানানো হয়। এরপরেই মায়ের শেষকৃত্য সম্পন্ন করার জন্য স্থানীয় কন্ট্রোল রুমে ফোন করেন শ্রীনিবাস। তিনি হাসপাতালে উপস্থিত হলে শিবান্থ এবং সেলভি মিনাল তাঁকে জানায় তারা বেঙ্গালুরু পুরসভার তরফে কোভিড দেহ দাহ করার কাজ করে এবং মায়ের মৃতদেহ সৎকারের জন্য ১২ হাজার টাকা দিতে হবে শ্রীনিবাসকে। শুধু তাই নয়, মায়ের অস্থিও তুলে দেওয়া হবে তাঁর হাতে, জানায় ওই দুই ব্যক্তি। এরপরেই তাদের হাতে ১২ হাজার টাকা তুলে দেন মৃতার ছেলে। বিষয়টি অ্য়াম্বুলেন্স ড্রাইভারের চোখে আসায় তিনি সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে জানান। তদন্তকারীরা শ্রীনিবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, এই দুই পুরকর্মী তাঁকে জানিয়েছিল, টাকা দিলে মায়ের দেহ সৎকারের জন্য তাঁকে লাইনে দাঁড়াতে হবে না। এরপরেই ওই দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গোয়ালঘরে কোভিড সেন্টার, করোনা সারছে দুধ-গোমূত্রে!
সম্প্রতি সময়ে এটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। বিভিন্ন জায়গায় কোভিডে মৃত ব্যক্তিদের দেহ নিয়ে রমরমিয়ে চলছে ব্যবসা। ‘বিশেষ প্যাকেজের’ ফাঁদ পেতে বসেছেন অনেকেই। যেখানে রোগীর পরিবার থেকে চড়া টাকা চাওয়া হচ্ছে কোভিড রোগীর দেহ দাহ করার জন্য।






Source link