covid-19: একদিনে পার ২ লাখ! শঙ্কা বাড়াচ্ছে ‘ডাবল মিউট্যান্ট’ – covid 19: india crosses two lakh cases, is double mutant causing the blaze?

Share Now





হাইলাইটস

  • দেশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে কোভিড ১৯।
  • মাত্র ১০ দিনের মধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে গিয়েছে।
  • গত ২৪ ঘণ্টায় নজিরবিহীনভাবে আক্রান্তের সংখ্যা দু’ লাখ ছাড়াল।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: দেশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে কোভিড ১৯। মাত্র ১০ দিনের মধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে গিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নজিরবিহীনভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দু’ লাখ ছাড়াল। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দু’ লাখ ৭৩৯। মৃত্যু হয়েছে এক হাজার ৩৮ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯৩ হাজার ৫২৮ জন।

উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৪০ লাখ ৭৪ হাজার ৫৬৪। নিরিখে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ৬ হাজার ১৭৩ থেকে ১৪ লাখ ৭১ হাজার ৪৭৭ এ পৌঁছতে কয়েকদিন মাত্র সময় নিয়েছে কোভিড। এই প্রথম একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা দু লাখ অতিক্রম করল। যদিও এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন এক কোটি ২৪ লাখ ২৯ হাজার ৫৬৪ জন।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে শুরু করেছে। গত ৫ এপ্রিল নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল এক লাখ ৩ হাজার ৫৫৪। ১০ এপ্রিল করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন এক লাখ ৪৫ হাজার ৩৮৪ জন। ১৪ এপ্রিল অর্থাৎ বুধবার সেই সংখ্যাটা পৌঁছয় এক লাখ ৮৪ হাজার ৩৭২ এ। আজ অর্থাৎ ১৫ এপ্রিল দু লাখের সীমানা পেরিয়ে গিয়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। গত বছরের তুলনায় এবারের সংক্রমণের গতি অনেকটাই বেশি। বিশেষজ্ঞ মহলের দাবি, এবারে আরও ভয়ংকর চিত্র দেখতে চলেছে ভারত।

দিল্লি, মহারাষ্ট্র, পঞ্জাব, হরিয়ানা এবং উত্তরপ্রদেশে দ্রুত গতিতে বাড়ছে মহামারী। গত ২৪ ঘণ্টায় শুধুমাত্র রাজধানীতে সংক্রমিত হয়েছেন ১৭ হাজার ২৮২ জন। মহারাষ্ট্রের পরিস্থিতি এতটাই ভয়ংকর যে সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করতে হয়েছে শিবসেনা সরকারকে।

এদিকে বাংলার পরিস্থিতিও দিনদিন শঙ্কা বাড়াচ্ছে। বুধবার নবান্ন জানায়, ওই দিন বাংলায় করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ২৪। মঙ্গলবার রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ৪ হাজার ৮১৭ জন, মৃত্যু হয়েছিল ২০ জনের। মাত্র একদিনে সেই সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ১ হাজার। এই মুহূর্তে রাজ্যে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ৩২ হাজার ৬২১ জন। ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৩০ হাজার ১১৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৪৫৮ জনের। কমছে রাজ্যের সুস্থতার হারও। এই মুহূর্তে রাজ্যে সুস্থতার হার ৯৩.১৬ শতাংশ।

বর্তমানে দেশি স্ট্রেন বা ডাবল মিউট্যান্ট চিকিৎসকদের মাথাব্যথার মূল কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যা দক্ষিণ আফ্রিকা, ব্রিটেন এবং ব্রাজিল স্ট্রেনের হাইব্রিড। জানা গিয়েছে, ওই স্ট্রেন ১৫ রকম কায়দায় ছড়িয়ে পড়তে পারে। এদিকে সার্বিকভাবে প্রায় ৫ হাজার মিউটেশন ঘটিয়েছে করোনা। ফলত পরিস্থিতি যে ক্রমেই জটিল থেকে জটিলতর হয়ে উঠছে তা বলাই বাহুল্য।

কোভিড গ্রাসে বাংলায় একদিনে মৃত ২৪, আক্রান্ত প্রায় ৬ হাজার
টাটকা ভিডিয়ো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন এই সময় ডিজিটালের YouTube পেজে। সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন।






Source link