covaxin vs covishield: কোভ্যাক্সিনের থেকে কোভিশিল্ডের অ্যান্টিবডি বেশি! নয়া গবেষণায় চাঞ্চল্য – research shows covishield may produce more antibody than covaxin

Share Now





এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক:কোভিশিল্ড (Covishield) নিলে কোভ্যাক্সিনের (Covaxin) তুলনায় তৈরি হচ্ছে বেশি অ্যান্টিবডি। এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে নতুন গবেষণায় (Covaxin Vs Covishield)। গবেষকদের দাবি, সার্ভেতে অংশগ্রহণ করেছিলেন একাধিক চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মী। তাঁদের মধ্যে কেউ নিয়েছিলেন কোভিশিল্ড এবং কেউ কোভ্যাক্সিন। তাঁদের শরীরে তৈরি হওয়া অ্যান্টিবডির ভিত্তিতে এই পরীক্ষা করা হয় বলে খবর। গবেষণাতে উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। দ্বিতীয় ডোজে ভরসা শুধু সরকারি কেন্দ্রইগবেষণায় দেখা গিয়েছে, দুই প্রতিষেধকই করোনাভাইরাস আটকাতে এবং শরীরের রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়াতে যথেষ্ট সক্ষম। কিন্তু তারতম্য রয়েছে অ্যান্টিবডিতে। প্রথম ডোজ নেওয়ার পরই কোভিশিল্ডের (Covishield) কার্যক্ষমতা তৈরি হয় ৭০ শতাংশ। সেখানে কোভ্যাক্সিনের কার্যক্ষমতা ধরা পড়ে ৮১ শতাংশ। এই গবেষণায় মোট ৫১৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী অংশগ্রহণ করেন। যার মধ্যে ৪২৫ জন কোভিশিল্ড (Covishield) নিয়েছিলেন, বাকি জন কোভ্যাকসিন (Covaxin)। তাঁদের মধ্যে ৯৫ শতাংশের শরীরে দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পর বেশি সংখ্যায় অ্যান্টিবডি পাওয়া গিয়েছে। দেখা গিয়েছে, কোভিশিল্ড (Covishield) নিলে শরীরে তৈরি হচ্ছে ৯৮.১ শতাংশ অ্যান্টিবডি। সেখানে কোভ্যাকসিনে (Covaxin) পাওয়া যাচ্ছে ৮০ শতাংশ। এমনটাই তথ্য উঠে এসেছে বলে দাবি গবেষকদের।

বিরাট স্বস্তি! করোনার একাধিক প্রজাতিকে মারতে সক্ষম Covaxinগবেষকরা আরও জানাচ্ছেন, দুই প্রতিষেধকের ক্ষেত্রেই রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা রয়েছে। তবে অ্যান্টি-স্পাইক অ্যান্টিবডি তৈরির তারতম্য দেখা গিয়েছে। গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে দু’টি ডোজ নেওয়ার পর ২৭ জন কোভিড আক্রান্ত হন। তবে কোনও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। তবে এ ক্ষেত্রে আবার কোভ্যাক্সিন বেশি কার্যকরী হয়েছে। কোভিশিল্ডের (Covishield) ক্ষেত্রে ৫.৫ শতাংশ এবং কোভ্যাক্সিনের (Covaxin) ক্ষেত্রে ২.২ শতাংশ টিকাগ্রহণকারী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যদিও অ্যান্টিবডির মাত্রা কোভিশিল্ড গ্রহণকারীদের মধ্যেই বেশি পাওয়া গিয়েছে রিপোর্টে। তবে ষাটোর্ধ্ব টিকাগ্রহণকারীদের মধ্যে অ্যান্টিবডি তৈরি হওয়ার প্রবণতা কম লক্ষ্য করা গিয়েছে।






Source link