coronavirus: দৈনিক সংক্রমণে রেকর্ড পতন, সুস্থতার পথে দেশ – india witness 80834 new covid cases in last 24 hours

Share Now





হাইলাইটস

  • দৈনিক সংক্রমণে রেকর্ড পতন।
  • দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮০ হাজার ৮৩৪ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৩০৩ জনের।
  • গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে কোভিডমুক্ত হয়েছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ৬২ জন।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: দৈনিক সংক্রমণে রেকর্ড পতন। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮০ হাজার ৮৩৪ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৩০৩ জনের। সংক্রমণ কমলেও চিন্তা বাড়চ্ছে মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে কোভিডমুক্ত হয়েছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ৬২ জন।

এখনও পর্যন্ত দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৯৪ লাখ ৩৯ হাজার ৯৮৯ জন। তাঁদের মধ্যে কোভিডমুক্ত হয়েছেন ২ কোটি ৮০ লাখ ৪৩ হাজার ৪৪৬ জন। এখনও পর্যন্ত দেশে করোনা প্রাণ কেড়েছে ৩ লাখ ৭০ হাজার ৩৮৪ জনের। দেশে বর্তমানে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ১০ লাখ ২৬ হাজার ১৫৯।

করোনার হাত থেকে রক্ষা পেতে টিকাকরণে জোর বাড়ানোর পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এখনও পর্যন্ত দেশে টিকা পেয়েছেন ২৫ কোটি ৩১ লাখ ৯৫ হাজার ৪৮ জন। প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে টিকা হয়ে উঠবে অন্যতম হাতিয়ার, মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু করোনাভাইরাসের ডেলটা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে কাজ করছে না কোভ্যাকসিন এবং কোভিশিল্ড, সম্প্রতি ন্যাশানাল সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এবং AIIMS-এর (NCDC) গবেষণায় উঠে এসেছে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য। যদিও এই গবেষণা কতটা সঠিক সেই বিষয়ে প্রশ্ন রয়ে গিয়েছে।

তথ্যে কারচুপি? করোনায় মৃত্যু বাড়ল ৭২%
AIIMS এবং ইনস্টিটিউট অফ জিনোমিক্স অ্যান্ড ইন্টিগ্রেটিভ বায়োলজির (IGIB) এই গবেষণার জন্য ৬৩ জন করোনা রোগী, যাঁদের দেহে করোনার একাধিক উপসর্গ রয়েছে, তাঁদের থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এই ৬৩ জনের মধ্যে ৫৩ জনকে কোভ্যাকসিন টিকার কমপক্ষে একটি করে ডোজ দেওয়া হয়েছিল এবং বাকিরা নিয়েছিলেন কোভিশিল্ড। গবেষণায় দেখা গেছে, এই ৬৩ জনের মধ্যে ২৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের ডেলটা ভ্যারিয়েন্টে থাবা বসিয়েছে এবং জীবানুর মাত্রা ৭০.৩ শতাংশ।

একাধিক স্টেশন টিকিট বিক্রি শুরু করল উত্তর রেল! অনেকটা বাড়ল দাম
প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে ল্যানসেট জার্নালে (Lancet Journal) প্রকাশিত ব্রিটিশ বিজ্ঞানীদের একটি গবেষণা জানান দিচ্ছে, ডেল্টা প্রজাতি অর্থাৎ করোনার B.1.617.2 স্ট্রেন মোকাবিলায় প্রবীণ নাগরিকদের ভ্যাকসিনের তিনটি ডোজ (Corona Vaccine) দেওয়া প্রয়োজন।






Source link