Bengali Tv Serials Start Shooting Of Fresh Episodes From Today – Bengali TV Serial: শ্যুটিং জট খুলল, স্বস্তিতে টলিপাড়া | Eisamay

Share Now





মন্ত্রীর মধ্যস্থতায় রফাসূত্র। আজ থেকে স্বাভাবিক ছন্দে টলিপাড়ার শুটিং। লিখছেন ভাস্বতী ঘোষ

প্রযোজকরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে আগেই একমত হয়েছিলেন যে, ফেডারেশনের সভাপতির মুখোমুখি বসে আলোচনা করতে চান না তাঁরা। সে কারণে বৃহস্পতিবার সন্ধে গড়াতেই মন্ত্রী প্রথমে প্রযোজকদের সমস্যার কথা শোনেন। এর পর ডাক পড়ে ফেডারেশনের। ফেডারেশনের সভাপতি স্বরূপ বিশ্বাস টেকনিশিয়ানদের সমস্যার কথা তুলে ধরেন। দু’ পক্ষের সঙ্গে নানাবিধ আলোচনায় ঘড়ির কাঁটা সাড়ে আটটা ছুঁয়ে ফেলে। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশ ছিল, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব, শুটিংয়ের স্বাভাবিক ছন্দ ফেরাতে হবে। সে কারণেই রাতের দিকে সিদ্ধান্ত হয়, আজ থেকে টেকনিশিয়ানদের উপস্থিতিতে সুষ্ঠুভাবে হবে শুটিং। পাশাপাশি দু’ পক্ষের যা অভিযোগ, তা জমা পড়ে মন্ত্রীর কাছে। এ নিয়ে আলোচনা করা হবে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব। এরপর ফেডারেশনের তরফে সাধারণ সম্পাদক অপর্ণা ঘটক এক বিজ্ঞপ্তিতে সদস্যদের জানিয়ে দেন, ‘ফেডারেশনের সমস্ত গিল্ড বা ইউনিয়ন বা অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও সম্পাদকদের উদ্দেশে জানানো হচ্ছে যে, মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইচ্ছানুসারে ২০টি ধারাবাহিকের কাজ ১৮ জুন থেকে পুনরায় চালু হচ্ছে। এ ব্যাপারে উল্লেখ্য, প্রযোজকদের সংগঠনের সঙ্গে আমাদের কোনও আলোচনা হয়নি’।

২০টি ধারাবাহিকের শুটিং ঘিরে বৃহস্পতিবার সকালেও টলিপাড়ায় ছিল অশান্তির আবহাওয়া। টেকনিশিয়ানদের ফেডারেশনের তরফে নির্দেশ ছিল, এ সব শুটিংয়ে যেন না যান টেকনিশিয়ানরা। এ দিকে প্রযোজকরা শুটিং চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার পক্ষে ছিলেন। তাই বেশ সমস্যার মধ্যেই চালিয়ে নিয়ে যেতে হয় শুটিং। এক প্রযোজক স্পষ্ট করেন, ‘কিছু টেকনিশিয়ান কাজ করার জন্য ফেডারেশন থেকে বেরিয়ে আসতেও রাজি ছিলেন। কিন্তু তাঁদের হুমকি দেওয়া হয়েছে’। এমন পরিস্থিতিতে প্রযোজকরা নিজেদের মধ্যে মিটিং করে ঠিক করেছিলেন, প্রয়োজনে আজ থেকে প্রশাসনের সাহায্য নেবেন তাঁরা। তবে তার আর দরকার পড়বে না।

‘শুট ফ্রম হোম’-এর কারণে বছরের ২৩তম সপ্তাহে অধিকাংশ ধারাবাহিকের রেটিং কমেছে। যেমন এই মুহূর্তে এক নম্বর ধারাবাহিক ‘মিঠাই’ এক সময় ১২ ছুঁয়েছিল। নির্দিষ্ট গ্রুপে এই ধারাবাহিকের রেটিং থমকেছে আটে। ২৪ নম্বর সপ্তাহে রেটিং আরও কমতে পারে, তাও আশঙ্কা। এমন পরিস্থিতিতে যত্নসহকারে শুটিং করা এপিসোড দেখাতে মরিয়া বিনোদন চ্যানেলগুলো। তাই মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে শুটিং জট কাটায়, শেষ পর্যন্ত স্বস্তি পেল টলিপাড়া।






Source link