হাসপাতালে চিকিত্সকের পরামর্শেই প্রয়োগ করা যেতে পারে Remdisivr: AIIMS প্রধান

Share Now





নিজস্ব প্রতিবেদন: অ্যান্টি ভাইরাল ড্রাগ Remdisivr নিয়ে আগেই সতর্ক করেছিলেন দিল্লি এইমস প্রধান রণদীপ গুলেরিয়া। দেশে করোনার সংক্রমণের মধ্যে অনেকেই এই ওষুধটি ঘরে মজুত করছেন বা কোভিড রোগীর উপরে প্রয়োগও করছেন।  এনিয়ে ফের সতর্ক করলেন এইমস প্রধান। 

আরও পড়ুন-দৈনিক মৃত্যুতে রেকর্ড রাজ্যের, ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত ৯৬

শুক্রবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে গুলেরিয়া বলেন, কোনও চিকিত্সকের পরামর্শ ছাড়া করোনা রোগীর উপরে Remdisivr প্রয়োগ করা ঠিক নয়। একমাত্র হাসপাতালেই রোগীর উপরে এই ওষুধ ব্যবহার করা যেতে পারে। তা না হলে উল্টো ফল হতে পারে।

গত ১৯ এপ্রিল এক সাংবাদিক সম্মলেন গুলেরিয়া(Randeep Guleria) বলেন, Remdesivir একমাত্র সেই রোগীকেই দেওয়া যেতে পারে যিনি করোনা সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন, শরীরে অক্সিজেন কম যাচ্ছে, এক্স রে বা সিটি স্ক্যানে বুকে কোনও সংক্রমণ ধরা পড়েছে। জেনে রাখা ভালো Remdesivir কোনও ম্য়াজিক ড্রাগ নয়। করোনায় মৃত্যু কম করার ক্ষেত্রে এর তেমন কোনও ভূমিকাও নেই। যেসব রোগীর মধ্যে খুব কম করোনার(Covid-19) উপসর্গ রয়েছে তাদের Remdesivir দিলে যেমন কোনও কাজ হয় না। তেমনি এটি দিতে দেরি করলেও কোনও কাজ হয় না। 

আরও পড়ুন-Covid-এর জেরে বাতিল একাদশের পরীক্ষা, উচ্চ মাধ্যমিক এবার হোম সেন্টারেই

কোভিড উপসর্গ থাকা মানুষজনের হোম আইসোলেশন(Home Isolation) নিয়েও একাধিক প্রশ্নের উত্তর দেন গুলেরিয়া। এইমস প্রধান বলেন, উপসর্গ দেখা দিলে অন্ততপক্ষে ১০ দিন হোম আইসোলেশনে থাকতে হবে। দেখতে হবে টানা ৩ দিন কোনও জ্বর আসছে কিনা। যদি না আসে তাহলেই আইসোলেশন থেকে বেরিয়ে আসা যাবে।

স্টেরয়েড নেওয়ার ব্যাপারেও সতর্ক করেন তিনি। বলেন, মৃদু উপসর্গ থাকলে স্টেরয়েড ব্যবহার ঠিক নয়। এতে উল্টো ফল হতে পারে। চিকিত্সকের পরামর্শ ছাড়া এর প্রয়োগ উচিত নয়।







Source link