বিচারব্যবস্থার হস্তক্ষেপ কাম্য নয়, Vaccine-নীতি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টকে জানাল কেন্দ্র

Share Now





নিজস্ব প্রতিবেদন: কেন্দ্রের টিকা-নীতি নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে দেশজুড়ে। নাগরিকদের অগ্রাধিকার না দিয়ে বিদেশে টিকা রফতানি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিরোধীরা। দামের ফারাক, টিকাকরণে মন্থর গতি ও অপরিমিত জোগান নিয়েও কাঠগড়ায় মোদী সরকার (Modi Govt)। সমালোচনা সত্ত্বেও সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court) বর্তমান টিকা নীতির পক্ষেই সওয়াল করল কেন্দ্র। হলফনামা দিয়ে সরকার জানাল, টিকাকরণে বিচারবিভাগীয় হস্তক্ষেপ কাম্য নয়। এতে অপ্রত্যাশিত ও অপ্রয়োজনীয় পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।  

হলফনামায় কেন্দ্র জানাল,”বিশ্ব অতিমারীর সময় বিশেষজ্ঞ ও বিজ্ঞানীদের মতামতের উপর নির্ভর করে নির্ধারিত হয় দেশের কৌশল। তাই বিচারবিভাগীয় হস্তক্ষেপ নিষ্প্রয়োজন। অর্থবহ ও উচ্চাশাবশত বিচারব্যবস্থার হস্তক্ষেপে তৈরি হতে পারে অপ্রত্যাশিত ও অনিচ্ছাকৃত পরিস্থিতি। বিশেষজ্ঞের পরামর্শ অথবা প্রশাসনিক অভিজ্ঞতা না থাকলে ডাক্তার, বিজ্ঞানী ও বিশেষজ্ঞদের উদ্ভাবনী সমাধানের পথে বাধা সৃষ্টি করতে পারে।”      
ভ্যাকসিনের (COVID Vaccine) দামের ফারাক নিয়ে গত সপ্তাহে কেন্দ্রকে বিবেচনা করতে বলেছিল শীর্ষ আদালত (Supreme Court)। সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১৪ ও ২১ মনে করিয়ে দিয়েছিল সরকারকে। টিকার দরের ফারাক নিয়ে কেন্দ্রের দাবি, কোভিড প্রতিষেধকের দামের আয়ত্তের মধ্যে রয়েছে। সরকারের তদ্বিরের পর গোটা দেশে একই দাম রেখেছে দুটি উৎপাদনকারী সংস্থা। রাজ্যগুলি বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়ার ঘোষণা করেছে। সেজন্য ১৮ থেকে ৪৫ বছরের ব্যক্তিরা ফ্রি-তে টিকা পাবেন। গ্রামীণ এলাকায় সৎকারকর্মী, পঞ্চায়েত কর্মীরাও প্রথম সারির কোভিডযোদ্ধা। ফলে বিনামূল্যে টিকাকরণে আওতায় রয়েছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন- কোথাও Lockdown,কোথাও কড়া curfew, ‘কঠোরতা সূচক’-এ এগোল ভারত
       







Source link