বাংলায় প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে বাড়ছে ইভটিজিং, মোদীর বিরুদ্ধে এফআইআর, Fir files against Narendra Modi as Eve teasing on Modi’s tune Oo Didi increases

Share Now





মোদীর 'ও দিদি' সম্বোধন

মোদীর ‘ও দিদি’ সম্বোধন

প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর মুখ দেখাদেখি কার্যত বন্ধ। করোনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ডাকে হওয়া মুখ্যমন্ত্রীদের সভায় হাজিরা দিচ্ছেন মুখ্যসচিব। অন্যদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিদি ডাকে অবিচল প্রধানমন্ত্রী মোদী। দীর্ঘদিন থেকেই তিনি রাজ্যে করা রাজনৈতিক সভাগুলিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিদি বলেই সম্বোধন করছেন। আর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভাইপো বলে। বলা ভাল প্রধান বলছেন, ও দিদি। যা নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগও দায়ের করে তৃণমূল কংগ্রেস।

মোদীর সম্বোধন অপমানজনক, দাবি তৃণমূলের

মোদীর সম্বোধন অপমানজনক, দাবি তৃণমূলের

তৃণমূলের তরফে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রত্যেকটি সভা থেকেই দিদি সম্বোধনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করছেন। যা অপমানজনক। পাশাপাশি তৃণমূলের তরফে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর এভাবে একটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে সম্বোধন করা দুর্ভাগ্যজনক। তাদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর এই ভাষা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হেনস্তার পাশাপাশি তাচ্ছিল্য করার শামিল।

বাড়ছে ইভটিজিং

বাড়ছে ইভটিজিং

এবারের নির্বাচনে অন্যতম ইস্যু মহিলাদের নিরাপত্তা। কিন্তু বেঙ্গল সিটিজেন ফোরাম নামে একটি সংগঠনের অভিযোগ প্রধানমন্ত্রীর ‘ও দিদি’ ডাকের সুরে বিভিন্ন জায়গায় ইভটিজিং বাড়ছে। প্রধানমন্ত্রীকে সরাসরি অভিযুক্ত করে দাবি করা হয়েছে, কটূক্তির শিকার হচ্ছেন সাধারণ মহিলারা। এই ঘটনায় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি করা হয়েছে ওই সংগঠনের তরফে। সংগঠনের তরফে জয় মুখোপাধ্যায় বলেছেন, যেভাবে প্রধানমন্ত্রী বাংলার মেয়ে মমতাকে হেনস্তা করছেন তা অপমানজনক। বিষয়টি নিয়ে তারা নির্বাচন কমিশনেও যাবেন বলে জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর

প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর

বিষয়টি নিয়ে আমহার্স্ট স্ট্রিট থানায় প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে ওই সংগঠনের তরফ থেকে। বিষয়টি নিয়ে এদিন সংগঠনের সদস্যরা থানার সামনে বিক্ষোভও দেখান। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী কুশপুতুলও জ্বালানো হয়। প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে ক্ষমা চাওয়ার দাবিও তোলা হয়।






Source link