দুইবঙ্গে দুই জনগোষ্ঠী মান বাঁচাল গেরুয়া শিবিরের, Matuas and Rajbanshi’s save face of BJP in South and North Bengal

Share Now





বিজেপির পাশে মতুয়ারা

বিজেপির পাশে মতুয়ারা

মতুয়া ভোট যে দলের দিকে, তারাই ভোটবাক্সে সুবিধা পেয়েছে। আসন বেড়েছে তাদের। সেটা হয়েছে বাম আমলে। তৃণমূলের সময়েও। তবে ২০১৯-এর পরে ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে মতুয়া ভোট গিয়েছে বিজেপির দিকে। দক্ষিণবঙ্গের বিশেষ করে উত্তর ২৪ পরগনা এবং নদিয়ার বিস্তীর্ণ অঞ্চলের আসনে যে কোনও দলে হারা-জেতা নির্ভর করে মতুয়াদের ওপরে। যার জেরে মতুয়ারা বিভক্ত এবং বিভক্ত হয়ে গিয়েছে ঠাকুরবাড়িও। বিজেপির তরফে মতুয়াদের নাগরিকত্বে আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল। ভোটের ফল প্রকাশের পর দেখা গিয়েছে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ উত্তর ও দক্ষিণ, বাগদা, গাইঘাটা, নদিয়ার রানাঘাট উত্তর, রানাঘাট দক্ষিণ, কৃষ্ণগঞ্জ বিজেপি জিতেছে। বিজেপি জয় পেয়েছে হরিণঘাটা এবং কল্যাণীর আসনও।

মতুয়া ভোট শাসকদলের বিরুদ্ধে যাওয়ার কারণ

মতুয়া ভোট শাসকদলের বিরুদ্ধে যাওয়ার কারণ

মতুয়া ভোট শাসকদলের বিরুদ্ধে যাওয়ার বিভিন্ন কারণের মধ্যএ অন্যতম হল তাদের মধ্যে বিভাজনের চেষ্টা মতুয়া সংগঠনের তরফে বলা হয়েছে মতুয়া উন্নয়ন পর্ষদ আগেই ছিল। এরপরেও কেন নমশূদ্র উন্নয়ন পর্ষদ তৈরি করা হল। সেই বিভাজন অনেকেই মানতে পারেননি।

বিজেপির দিকে রাজবংশীরাও

বিজেপির দিকে রাজবংশীরাও

২০১৯-এর নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে ভাল ফল করেছিল বিজেপি। যার জেরে বিজেপি ধরে নিয়েছিল ফল তার থেকেই ভাল হতে পারে বিধানসভা নির্বাচনে। তবে উত্তরবঙ্গের মানুষ নিরাশ করেনি বিজেপিকে। বিশেষ করে রাজবংশী এবং কামতাপুরী অধ্যুষিত এলাকায় তৃণমূল সুবিধা করে উঠতে পারেনি। উত্তরবঙ্গের আসনগুলির মধ্যে জলপাইগুড়ির রাজগঞ্জ, কোতবিহারের দিনহাটা, মাথাভাঙা, তুফানগঞ্জ, মেখলিগঞ্জ, কোচবিহার উত্তর এবং দক্ষিণ রাজবংশী অধ্যুষিত। ফলও বিজেপির পক্ষে গিয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এইসব আসনে তৃণমূলের হারের অন্যতম কারণ হল, দলের অন্তর্দ্বন্দ্বও। ভোটের বাক্সে যার প্রভাব পড়েছে।

রাহুল যেখানেই সভা করেছেন সেখানেই জমানত জব্দ কংগ্রেসের, একই অবস্থা তৃতীয় ফ্রন্টের ৮৫ % আসনে

 ব্যতিক্রম

ব্যতিক্রম

পূর্ববঙ্গ থেকে আসা এই দুই জনগোষ্ঠীর সংখ্যাধিক্য যেখানে রয়েছে, সেই জায়গায় সুবিধা করতে পারেনি তৃণমূল কংগ্রেস। এখনও পর্যন্ত একটাই ব্যতিক্রম, হল হাবরা। সেখানে জয়ী হয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

অন্যদিকে উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরের রাজবংশী অধ্যুষিত আসনগুলি গিয়েছে তৃণমূলের দখলে।






Source link