অবসরের পর কর্মজীবন নিয়ে খুল্লমখুল্লা স্মৃতিকথা লিখবেন? নিতে হবে মোদী সরকারের অনুমতি

Share Now





নিজস্ব প্রতিবেদন: আমলাদের স্মৃতিকথার একটা এতিহ্য সব দেশেই আছে। এ দেশেও তা বেশ রমরম করেই তা চলে। বাস্তবিক, অনেকে মুখিয়েই থাকেন অবসরপ্রাপ্ত আমলাদের এই রকম স্মৃতিকথা খুঁটিয়ে পড়ার জন্য। কেননা তাতে এমন অনেক তথ্য-কাহিনি থাকে যা সচরাচর প্রকাশিত হয় না। এবং সেই আমলা যে-সরকারের অধীনে কাজ করেছেন সেই সরকারের নানা কর্মপদ্ধতি, নীতি-সিদ্ধান্ত, সাফল্য-ব্যর্থতা সম্পর্কে বহু অজানা কথা সেখান থেকে জানা যায়। 

আরও পড়ুন: অ্যান্টিগুয়ার প্রধানমন্ত্রী চোকসিকে citizenship থেকে বঞ্চিত করার নোটিস পাঠিয়েছিলেন ২০‍১৯ সালেই!

কিন্তু সে সবের দিন সম্ভবত এবার শেষ হতে চলল। কেননা এবার আর অবসরপ্রাপ্ত আমলারা (Retired civil servants) চাইলেই তাঁদের কর্মজীবন নিয়ে যা-খুশি-তাই লিখতে পারবেন না। তা ‘সেন্সর’ করা হবে। বুধবার এ নিয়ে একটি নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্র। তাতে জানানো হয়েছে, দেশের নিরাপত্তা এবং গোয়েন্দা বিভাগে (intelligence or security-related organisation) চাকরি করেন বা করেছেন যাঁরা, তাঁরা চাইলেই নিজেদের অভিজ্ঞতার ঝুলি লিখিতভাবে উপুড় করতে পারবেন না। সে রকম ইচ্ছে থাকলে আগে সংশ্লিষ্ট দফতরের প্রধানের অনুমতি (clearance from the head of the organisation) নিতে হবে। সেই সব প্রধানেরা যদি মনে করেন, ওই লেখায় দেশের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে কোনও বিঘ্ন আসবে না বা দেশের সার্বভৌমত্বে কোনও প্রভাব পড়বে না, তবেই সেই লেখা প্রকাশ করা যাবে। কেননা, ওই ধরনের রচনায় যদি দেশের নিরাপত্তা সংক্রান্ত এমন কোনও তথ্য থাকে যা দেশের সার্বভৌমত্ব বা ঐক্যে বিঘ্ন আনতে পারে বা বৈদেশিক সম্পর্কে প্রভাব ফেলতে পারে, তবে তা লেখকের ক্ষেত্রে শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে গণ্য হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র (central govt)।

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের পেনশন নীতিতে সংশোধনী (amendment) এনেছে কেন্দ্রীয় কর্মী এবং প্রশিক্ষণ বিভাগ (Department of Personnel and Training Dept)। তাতেই দেশের গোপন এবং সংবেদন শীল তথ্য প্রকাশের ব্যাপারে এই নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হয়েছে।

(Zee 24 Ghanta App : দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 

আরও পড়ুন: বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক থাকলেই তিনি ‘মন্দ মেয়ে’ নন, বলল হরিয়ানা হাই কোর্ট







Source link